ফ্রিল্যান্সিং এবং স্কিল ডেভেলপমেন্ট অনলাইন কোর্স, মাত্র ১৯৯ টাকা

ঘরে বসে স্কিল ডেভেলপ করা এখন নতুন কিছু নয়, আপনি খুব সহজে ইন্টারনেট এর মাধ্যমে রেপটো থেকে ডেভেলপ করে নিতে পারবেন আপনার প্রয়োজনীয় স্কিল। যে স্কিল গুলো ব্যবহার করে আপনি দেশীয় কোম্পানি গুলোতে জব করতে পারবেন অথবা ইন্টারনেট এর মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন।

১৯৯ টাকায় কোর্স অফারঃ 

শুধু মাত্র অনলাইন পেমেন্টের ক্ষেত্রে এই অফার প্রযোজ্য হবে। অফার পেতে যেই কোর্সটি আপনি নিতে চাচ্ছেন তার নিচের বাটনে ক্লিক করে লগইন (আগে একাউন্ট না করা থাকলে সাইনআপ) করুন। তারপর Buy Now বাটনে ক্লিক করে বিকাশ, রকেট ও অনান্য মোবাইল ব্যাংকিং অথবা যে কোন ব্যাংকের ভিসা বা মাস্টার কার্ড দিয়ে পেমেন্ট করলে পাবেন এই অফার।

এবারের অফারে থাকছে ৫ টি কোর্স

  • LICT পরিপূর্ণ গ্রাফিক ডিজাইন কোর্স – রেগুলার প্রাইস ২০০০ টাকা
  • LICT ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স – রেগুলার প্রাইস ২০০০ টাকা
  • LICT ওয়েব ডিজাইন কোর্স – রেগুলার প্রাইস ২০০০ টাকা
  • Professional Video Editing with Adobe Premiere Pro – রেগুলার প্রাইস ৫০০০ টাকা
  • Microsoft Advanced Excel Course – রেগুলার প্রাইস ৩০০০ টাকা

LICT পরিপূর্ণ গ্রাফিক ডিজাইন কোর্স

এই কোর্সে মূলত অ্যাডোব ফটোশপ, অ্যাডোব ইলাস্ট্রেটর এবং অ্যাডোব ইনডিজাইন এর সফটওয়্যার নিয়ে প্রোজেক্টসহ বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। কালার থিওরি, টুলস অব গ্রাফিক ডিজাইন, রি-টাচিং এবং রি-পেয়ারিং ইমেজ, কর্পোরেট স্টেশনারি, লোগো ডিজাইন, টুলস অব ইনডিজাইন, নিউজ পেপার এবং ম্যাগাজিন ডিজাইন নিয়েই কোর্সটি সাজানো হয়েছে।

গ্রাফিক ডিজাইন বর্তমান সময়ের একটি চাহিদাবহুল এবং জনপ্রিয় পেশা । যত দিন যাচ্ছে ততই বৃদ্ধি পাচ্ছে ডিজাইন ফার্ম, এজেন্সী, আইটি কোম্পানির সংখ্যা, সেই সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে ডিজাইনারের কর্মসংস্থানও । বর্তমানে প্রায়ই খবরের কাগজ বা অনলাইনে গ্রাফিক ডিজাইনার এর জন্যে চাকরির বিজ্ঞপ্তি দেখা যায়।

একজন ডিজাইনারের চাহিদা ও গুরুত্ব কতখানি, সেটা নিয়ে নিশ্চয়ই বিস্তারিত বলতে হবে না। সুতরাং, আপনি যদি নিজেকে গ্রাফিক ডিজাইনের উপর পরিপূর্ণ দক্ষ করে তুলতে চান, তাহলে এই কোর্সটি আপনার জন্য হতে পারে একটি দারুণ উদ্যোগ।

বিস্তারিত দেখুন নিচের ভিডিওতে

LICT ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স

এই কোর্সে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন এর বিভিন্ন কৌশল, কন্টেন্ট মার্কেটিং, গুগল অ্যাডওয়ার্ড, কিভাবে সাইটে ট্রাফিক বাড়াবেন অর্থাৎ ট্রাফিক অ্যানালাইসিস, সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাডভারটাইজমেন্ট, ফেসবুক মার্কেটিং, গুগল অ্যানালাইটিকস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

স্মার্ট ক্যারিয়ার হিসেবে ডিজিটাল মার্কেটিং এখন অনেকেরই পছন্দনীয় একটি সেক্টর। একাডেমিক ও কর্পোরেট লেভেল থেকে শুরু করে, অনলাইন ভিত্তিক প্রায় সকল প্রতিষ্ঠানেই নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটার। নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন, একজন দক্ষ ডিজিটাল মার্কেটার এর চাহিদা কতখানি।

আপনি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম গুলোকে কিভাবে স্মার্ট হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে , কোম্পানির মার্কেটিং, ব্র্যান্ডিং করবেন কিংবা নিজের বিজনেস গ্রো করবেন সেসব নিয়েও রয়েছে গাইডলাইন। সুতরাং, রেপটোর স্টেপ বাই স্টেপ কোর্সটি করে আপনি নিজেকে একজন অভিজ্ঞ ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে গড়ে তুলতে পারবেন।

বিস্তারিত দেখুন নিচের ভিডিওতে

LICT ওয়েব ডিজাইন কোর্স

এই কোর্সে মূলত ওয়েব ডিজাইন ফান্ডামেন্টাল, মোবাইল ডিজাইন ফান্ডামেন্টাল, HTTP ফান্ডামেন্টাল, HTML ডকুমেন্টস CSS ফ্রেমওয়ার্ক, অ্যানিমেশন CSS, ওয়ার্ডপ্রেস টার্মিনলোজি, অ্যাডমিন প্যানেল, ডোমেইন হোস্টিং, ম্যানেজ ফাইল ও ডাটাবেজের বিস্তারিত কাজ দেখানো হয়েছে।

এছাড়া HTML, CSS এর প্রপার্টিজ, ট্যাগ, এট্রিবিউট, HTML কনভারশন নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

সুতরাং, এই কোর্সটি কমপ্লিট করে আপনি নিজেকে ওয়েব ডিজাইনে পারদর্শী করে তুলতে পারবেন, পাশাপাশি ওয়েব সেক্টরে সম্মানজনক আয়ের ভালো জব করতে পারবেন।

Professional Video Editing with Adobe Premiere Pro

কোন কিছু শিখতে দরকার শেখার প্রতি পূর্ণ মনোনিবেশ ও আগ্রহ । আপনি যদি প্রোফেশনাল ভিডিও এডিটর হওয়ার প্রতি একবারও পূর্ণ মনোনিবেশ করে থাকেন, তাহলে আপনাকে Adobe Premiere Pro কোর্সে স্বাগতম। কোন কাজে সফলতা পেতে ধৈর্য নিয়ে এগিয়ে যেতে হয়।

আপনি Professional Video Editing শিখে নিজেকে প্রোফেশনাল জগতে এক উচ্চ সীমায় নিয়ে যেতে পারবেন। টিভি মিডিয়া ও ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে ভিডিও এডিটিং এর রয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা। ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্মেও এর রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। সুতরাং বুঝতেই পারছেন বর্তমান বাজারে ভিডিও এডিটিং এর কেমন চাহিদা। ভালো মানের মিউজিক ভিডিও, চলচ্চিত্র, নাটক, শর্ট ফিল্ম ও তথ্যচিত্র তৈরি করার জন্য অবশ্যই ভিডিও এডিটিং জানতে হবে।

আপনিও চাইলে ভিডিও এডিটিং শিখে খুব সহজে আপনার প্রফেশনাল ক্যারিয়ার গড়তে পারেন। এই কোর্সটি করলে আপনি যা শিখতে পারবেন তা হলো Premiere pro interface, Tools, Basic Editing, Special Effect, Green Screen Remove, Color Grading, Title Animation, Audio Editing, Final Rendering, Career guidline Tips ইত্যাদি।

বিস্তারিত দেখুন নিচের ভিডিওতে

Microsoft Advanced Excel Course

মাইক্রোসফট এক্সেল হচ্ছে একটি স্প্রেডশীট সফটওয়্যার। কর্পোরেট সেক্টরে মাইক্রোসফট এক্সেলের গুরুত্ব ও ব্যবহার সম্পর্কে কম-বেশী সবাই জানি। একটি সাধারন খাতায় কলম/পেন্সিল, রাবার এবং ক্যালকুলেটর দিয়ে যে কাজ করা যায়, এক্সেলের বিরাট পৃষ্টায় আমরা তার চেয়েও অনেক বেশী এবং জটিল কাজ সম্পন্ন করতে পারি।

যেকোনো ব্যবসা বানিজ্যের হিসাব – নিকাশসহ যাবতীয় কার্যাবলী এক্সেলের মাধ্যমে করা যায়। সকল প্রকার হিসাবের তথ্যাবলী সংরক্ষণ, সম্পাদন, মান যাচাই থেকে শুরু করে ডাটাবেজ কার্যাবলী সম্পাদন, কোন তথ্য বা ডাটা উচ্চ বা নিম্নক্রম অনুসারে সাজানো, মার্কশীট, সেলারিশীট, ক্যাশমেমো ইত্যাদি তৈরী, বাৎসরিক বাজেট প্রণয়ন, আয়-ব্যয়ের হিসাব , উৎপাদন ব্যবস্থাপনার কাজগুলোও এক্সেল দিয়েই করা যায়।

সর্বোপরি, অফিসে সাপ্তাহিক কিংবা মাসিক রিপোর্টিং এর ক্ষেত্রে এই এক্সেলের প্রয়োগ আপনার কাজকে অধিকতর সহজ করে দিবে। প্রফেশনালদের জন্য এই কোর্সটিতে সব ধরণের ডায়নামিক ফর্মুলা ও ফাংশনের কাজ দেখানো হয়েছে।

আপনার বেসিক স্কিলকে অ্যাডভান্সড লেভেলে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই কোর্সটি অনেক সহযোগিতা করবে। সুতরাং, কোর্সটি করে আপনিও হতে পারবেন এক্সেল এক্সপার্ট এবং গড়ে তুলতে পারবেন সাফল্যমন্ডিত প্রফেশনাল ক্যারিয়ার।

বিস্তারিত দেখুন নিচের ভিডিওতে